শেষবারের মতো ট্র্যাকে নামছেন বোল্ট

অবশেষে চলেই এলো সেইদিন। স্প্রিন্ট ট্র্যাকে শেষবারের মতো দৌড়াবেন উসাইন বোল্ট। যার আরেক নাম দ্য লাইটনিং বোল্ট বা বজ্রবিদ্যুত।  ২০০৮ বেইজিং অলিম্পিক দিয়ে উত্থান হয়েছিলো যে মহাতারকার, সেই  প্রস্তুত নিজের রানিং শু তুলে রাখতে।

ফোর ইন্টু হান্ড্রেড মিটার রিলেতে জ্যামাইকার হয়ে দৌড়াবেন তিনি। লন্ডনে অ্যাথলেটিক্সের বিশ্ব চ্যাম্পিয়শিপে এই স্প্রিন্টের ফাইনাল হবে বাংলাদেশ সময় রাত ২টা ৫০ মিনিটে।

শেষ ইভেন্টটি দলগত। অর্থাত ফোর ইন্টু হান্ড্রেড রিলে। অ্যাথলেটিক্সের অন্যান্য ইভেন্টের তুলনায় এই রিলে স্প্রিন্টের আবেদন খুব একটা বেশি ছিলো না ১০ বছর আগেও। কিন্তু উসাইন বোল্ট বদলে দিলেন দৃশ্যপট। অলিম্পিক কিংবা বিশ্ব চ্যাম্পিয়শিপে ২০০৮ থেকে ১০০ ও ২০০ মিটারের পর সবচেয়ে আকর্ষণীয় ইভেন্টে দলগত রিলে।

আর এই বদলের নায়ক বোল্ট। ২০০৮ এ বেইজিংয়ে বোল্টের নৈপূণ্যে বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলো জ্যামাইকা। যদিও দলের এক সদস্য ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়ায় ২০১৬ সালে এসে ডিসকোয়ালিফাই ঘোষণা করা হয় সবাইকে। তাতে কিছু যায় আসেনি। কারণ, বেইজিং অধ্যায় পেরিয়ে রিলেতে জ্যামাইকা নিজেদের রেকর্ড নতুন কোরে লিখেছে ২০১১ দেগু বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে। বোল্টের দল আবারও বিশ্বরেকর্ড গড়ে ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে। এবার অবিশ্বাস্য ৩৬.৮৪ সেকেন্ড টাইমিং।

২০০৮ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ৩টি অলিম্পিক আর ৪টি বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ – এই সাতটি বড় আসরেই স্বর্ণ নিয়েছে বোল্টের জ্যামাইকা।

সেই রিলে স্প্রিন্টে শেষবারের মতো দেশের হয়ে নামবেন বোল্ট। পুরো বিশ্ব চাইছে, জয় দিয়েই নিজের শেষ হোক বোল্টের ক্যারিয়ার। কিন্তু কাজটি সহজ হবার কথা নয়। কারণ, জাস্টিন গ্যাটলিনের যুক্তরাষ্ট্রের চারজনই আছেন দারুন ফর্মে। তাই বোল্টকে জেতাতে হলে জ্বলে উঠতে হবে সতীর্থ ইয়োহান ব্লেকসহ বাকী দুজনকেও।

একথা নিশ্চিতোভাবেই বলা যায় যে, বোল্টের শেষ দৌড় দেখার জন্য নির্ঘুম রাত কাটাবে লাখো ক্রীড়াপ্রেমী।

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন