কারপভ দ্য চ্যাম্পিয়ন

একটা সময় দাবার শেষ কথাই ছিলো কারপভ আর কাসপারভ। এই দুজনের মধ্যে কে সেরা সেটা অনেকটা পেলে-ম্যারাডোনা বিতর্কের মতো। সর্বকালের সেরা দাবাড়ুদের একজন আনাতলি কারপভের ৬৫তম জন্মদিন আজ।

বয়স তখন মাত্র ১২ বছর। খুব সখ করে ভর্তি হয়েছিলেন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দাবাড়ু মিকেইল বোতভিক্কিনের দাবা স্কুলে। কিন্তু শুরুতেই যেন মাথায় বাজ পড়ে আনতলি কারপভের। বোতভিক্কিন বলেন  “এই ছেলের দাবা খেলার ঘিলু নেই। ভবিষ্যত অন্ধকার।”

মাথায় যে ঘিলু অন্যদের চেয়ে কোন অংশে কম নেই, তার প্রমাণ দিতে খুব একটা দেরী করেননি কারপভ। সবচেয়ে কম বয়সে ততকালীন সোভিয়েত ন্যাশনাল মাষ্টার্স চ্যাম্পিয়ন হয়ে দেন দাঁত ভাঙা জবাব।

১৯৬৭ সালে বিশ্ব দাবা অঙ্গনে প্রবেশের তিন বছর পর বনে যান গ্রান্ড মাস্টার। এরপর ১৯৭৫ সাল থেকে টানা এগারো বছর বিশ্ব দাবায় শাসকের আসনে বসেন এই রুশ খেলোয়াড়।

১৯৮৬ সালে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ম্যাচ গ্যারি ক্যাসপারভের কাছে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হলেও, ১৯৯৩ সাল থেকে টানা ৭ বছর আবারো দাবার রাজত্ব ফিরিয়ে আনেন কারপভ।

অর্জনের পথ এখানেই থেমে যায়নি কারপভের। ৯ বার দাবার অস্কার আইএসিপি জেতেন তিনি। ২০১০ সালে ফিদে প্রেসিডেন্ট পদে লড়াই করে হেরে যান কারপভ।

খেলাধুলার পাশাপাশি স্বামাজিক কাজেও পিছিয়ে নেই তিনি। বিভিন্ন দেশের স্ট্যাম্প সংগ্রহ করাই সবচেয়ে বড় সখ সর্বকালের অন্যতম সেরা এই দাবাড়ুর।

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন